• রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৪:৫৯ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
মুত্তাকীর পরিচয় ও তাদের প্রতিদান ২৫ বছরে বিয়ে না করলেই জনসম্মুখে অদ্ভুত শাস্তি! শেরপুরে পথচারী ও অটোরিকশা চালকদের মাঝে বিশুদ্ধ পানি ও খাবার স্যালাইন সহ মাথায় সান ক্যাপ পরালেন পৌর মেয়র লিটন শেরপুরের সীমান্তবর্তী গারো পাহাড়ের সবুজ বন পুড়ে ছাই সীমান্তবর্তী নালিতাবাড়ীতে বন্যহাতির আক্রমণে কৃষকের মৃত্যু শেরপুরে প্রচন্ড তাপদাহের কারনে পৌরসভার উদ্যোগে রাস্তায় পানি ছিটানো ও পথচারী ও শ্রমীকদের মাঝে বিশুদ্ধ পানি বিতরণ শেরপুরে নালিতাবাড়ী থানা ও ডিবি পুলিশের জব্দকৃত ১৮১ বোতল ভারতীয় মদ ধ্বংস শেরপুর প্রেসক্লাবের বিতর্কিত কমিটি ভেঙ্গে নয়া কমিটি ঘোষণা  শ্রীবরদীতে সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে কিন্ডারগার্টেন গুলোতে পাঠদান পরীমনির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন
বিজ্ঞপ্তিঃ
🌏 শেরপুর জেলার প্রতিমুহূর্তের খবর পেতে ভিজিট করুন www.sherpurtoday.com ও www.facebook.com/sherpurtoday শেরপুর টুডে ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন www.youtube.com/sherpurtoday 🌏 আপনার কোম্পানি/পণ্যের বিজ্ঞাপন দিতে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন : ০১৯১৪-৮৫৪৪৩৯ 🌏

২৫ বছরে বিয়ে না করলেই জনসম্মুখে অদ্ভুত শাস্তি!

শেরপুর টুডে ডেস্ক | শেরপুরটুডে.কম
আপডেটঃ : শনিবার, ৪ মে, ২০২৪

পড়াশোনা শেষ করতে করতেই বয়স ২৫-এর কোঠা অতিক্রম করে। এমন অবস্থায় যদি তরুণ-তরুণীদের ২৫ বছরের মধ্যে বিয়ে না হয় তবে জনসম্মুখেই হবে শাস্তি। এমন নিয়মের কথা শুনে অনেকের চোখই চড়কগাছ? শুনতে অবাক লাগলেও এমনই নিয়ম চালু রয়েছে পৃথিবীর একটি দেশে।

এমন অদ্ভুত নিয়ম করেছে ডেনমার্ক। পৃথিবীতে বিভিন্ন দেশে বিয়ের বিভিন্ন নিয়ম প্রচলিত রয়েছে। তবে তারমধ্যে অন্যতম আবার অভিনব শাস্তি দেয়ার প্রথার প্রচলন রয়েছে ডেনমার্কের একটি শহরে।

ডেনমার্কে ২৫ বছর হওয়ার আগেই তরুণ-তরুণীদের বিয়ে করতে হবে। নতুবা প্রকাশ্যে তরুণ-তরুণীকে সবাই অপমান করতে তেড়ে আসবে। সেখানকার তরুণ-তরুণী যদি ২৫তম জন্মদিন পালন করে অথচ অবিবাহিত তাহলেই ডেনমার্কে তাদেরকে বিপদে পড়তে হবে।

স্থানীয়দের মতে, ২৫ বছরের অবিবাহিত তরুণ-তরুণীকে রাস্তা বা খোলা মাঠে নিয়ে সবার সামনে শরীরে দারুচিনি গুঁড়া মাখিয়ে দেয়া হয়। আর যদি বয়স ৩০ এর কোঠায় পৌঁছায় তবে দারুচিনি নয়, মরিচের গুঁড়া ছিটানো হয় অবিবাহিতদের শরীরে।

এ রীতির মাধ্যমে মূলত অবিবাহিত তরুণ-তরুণীকে ভালো করে মনে করিয়ে দেয়া হয় তার বিয়ের বয়স হয়েছে আর খুব শিগগিরই তাদের বিয়ে করতে হবে।

ডেনমার্কের ইতিহাস থেকে জানা যায়, বহু শতক বছর আগে থেকে এমন প্রথার প্রচলন ডেনমার্কে। অতীতে যেসব ছেলেরা মশলা বিক্রির কাজ করত, কিংবা ব্যবসার জন্য বিদেশে থাকতো তাদের বিয়ে করতে অনেকটা দেরি হতো। কখনও কখনও তাদের বিয়েই হতো না। ডেনমার্কের তরুণ-তরুণীরা যেন সে পথে কখনই না হাঁটেন তাই এখনও ২৫ বছর বয়সী ছেলে-মেয়েদের ক্ষেত্রে এ রীতির প্রচলন রেখেছেন ডেনমার্কবাসী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ