মো: মনিরুজ্জামান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে একই পরিবারের চার সদস্যকে হত্যা মামলায় ছয়জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার  দুপুরে কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আবদুল মান্নান এ রায় ঘোষণা করেন। এক আসামি পলাতক রয়েছেন।অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় একজনকে খালাস দিয়েছে আদালত।

রায় ঘোষণার সময় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পাঁচ আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় শুনে পাঁচ আসামি বিক্ষুব্দ হয়ে আদালতে কাঠগড়ার গ্লাসে ভাঙচুর চালায়।

জেলা আদালতের পিপি এস এম আবরাহাম লিংকন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলায় ৭ আসামির মধ্যে মমতাজ উদ্দিন, নজরুল ইসলাম মজনু, আমির হামজা, জাকির হোসেন, জালাল গাজি, হাসমত আলীকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। এর মধ্যে জালাল গাজি পলাতক রয়েছে। অপর আসামি নাইনুল ইসলামকে খালাস দেয় আদালত।

মৃত‍্যুদন্ড প্রাপ্ত আসামিরা হলো মমতাজ উদ্দিন, নজরুল ইসলাম মজনু, আমির হামজা, জাকির হোসেন, জালাল গাজি, হাসমত আলী। এর মধ্যে জালাল গাজি পলাতক রয়েছে। অপর আসামি নাইনুল ইসলামকে খালাস দেয় আদালত।

মামলা  সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ১৪ জানুয়ারি ভুরুঙ্গামারী উপজেলার দিয়াডাঙ্গা গ্রামে সুলতান মিয়ার বাড়িতে প্রবেশ করে সুলতান মন্ডল,তার নাতনি রোমানা, আনিকা ও স্ত্রী হাজেরাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনার পরদিন সুলতানের ছেলে হাফিজুর রহমান ভুরুঙ্গামারী থানায় একটি মামলা করেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত  আজ রায় ঘোষণা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *