ভারতের বিহারের নিজের মুসলিম নাম বলায়, গুলিবিদ্ধ হলেন এক মুসলিম যুবক

নিজের মুসলিম নাম বলায় এবার গুলিবিদ্ধ হলেন এক মুসলিম যুবক। রবিবার (২৬ মে) ভারতের বিহারের বেগুসরাই জেলায় এ ঘটনা ঘটেছে। খবর- দ্য হিন্দুর। ঘটনার পর ওই মুসলিম ব্যক্তির এক ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘটনার শিকার ওই যুবকের নামে মোহাম্মদ কাশিম।

জানা যায়, ব্যবসায়িক কাজে কাশিম তার মোটর সাইকেলে করে পাশের গ্রাম কুম্ভিতে যান। ওই গ্রামের রাজিব যাদব নামের এক ব্যক্তি তার নাম জিজ্ঞেস করেন। এসময় কাশিম তার নাম বললে যাদব তাকে গুলি করে এবং বলে তোমার পাকিস্তানে চলে যাওয়া উচিৎ।

কাশিম আরো বলেন, রাজিব একবার গুলি চালানোর পর আবার তার বন্দুকে গুলি ঢোকাতে শুরু করে। এসময় আমি তাকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে আসি। এ ঘটনায় থানায় এফ এই আর দায়ের করেছেন কাশিম। পুলিশ যাবককে গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে বলে খবরে বলা হয়েছে।

এর আগে, নামাজ থেকে ফেরার পথে হামলার শিকার হয়েছেন ভারতের এক মুসলিম যুবক। শনিবার (২৫ মে) রাতে দেশটির গুরুগ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে বলে খবরে বলা হয়েছে।

 

মারধরের শিকার মোহাম্মদ বরকত নামের ওই ব্যক্তি জানান, নামাজ শেষে মাথায় টুপি পড়ে ফিরছিলেন, পথিমধ্যে একদল অজ্ঞাত ব্যক্তি তার পথরোধ করে। এরমধ্যে একজন অকথ্য ভাষায় ডাক দিয়ে বলে এই এলাকায় টুপি পড়া নিষেধ।

বরকত বলেন, আমি নামাজ থেকে ফেরার কথা বললে ওই ব্যক্তি আমায় মারধর করে এবং আমায় ‘ভারত মাতা কি জয়’ এবং ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে জোর করে। তাতে আমি রাজি নাহলে আমায় শূকরের মাংস খাওয়ানোর হুমকি দেয়।

এরপর বরকত সেখান থেকে পালাতে চেষ্টা করলে ওই ব্যক্তি তার জামা ছিড়ে নেয়। একপর্যায়ে কান্নায় ভেঙে পড়লে ওই ব্যক্তিরা চলে যায়।

বরকতের চাচাতো ভাই এরপর এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এরপর পুলিশে খবর দেয়। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হলেও এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি বলে খবরে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *