শ্রীবরদীতে দুই ইউনিয়ন ভিক্ষুকমুক্ত ঘোষণা করলেন জেলা প্রশাসক

শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার শ্রীবরদী সদর ও গোসাইপুর ইউনিয়ন ভিক্ষুকমুক্ত ঘোষণা করলেন জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বৃহস্পতিবার দুপুরে শ্রীবরদী সদর ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে ভিক্ষুক পুনর্বাসনের লক্ষে ৫৮ জন ভিক্ষুকদের মাঝে অনুদান প্রদান করা হয়।

এ উপলক্ষে সদর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব। তিনি উপজেলার দুটি ইউনিয়নকে ভিক্ষুকমুক্ত ঘোষণা করে বলেন, ভিক্ষাবৃত্তি ভালো নয়। সরকার আপনাদেরকে পুনর্বাসনের আওতায় এনে সহযোগিতা করছে। তাই আপনারা আজকের পর থেকে আর ভিক্ষা করবেন না। এসময় ভিক্ষকুকরা আর ভিক্ষা করবে না বলে অঙ্গিকার করেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রকিবুল হাসানের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইউএনও সেঁজুতি ধর, সহকারি কমিশনার (ভূমি) মঞ্জুরুল আহসান, আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্প সমিতির উপজেলা সমন্বয়কারী শফিউল আলম প্রমুখ।

এতে শ্রীবরদী সদর ও গোশাইপুর ইউনিয়নের ৫৮ জন ভিক্ষুকের মধ্যে ৩৮ জন ভিক্ষুককে ৩ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা করে ঋণ প্রদান ও ন্যায্য মূল্যের ১০ টাকা কেজি দরের চালের কার্ড, ২০ জন ভিক্ষুককে ১০টি ভ্যান গাড়ি, ২ জনকে ২টি সেলাই মেশিন, ৪ জনকে ৪টি ওজন মাপার মেশিন ও একজনকে ১টি টং দোকানসহ ১০ হাজার টাকা ঋণ প্রদান করা হয়। এছাড়াও ৪ জনকে বিধবা ভাতা, ৪ জনকে বয়স্ক ভাতা ও ১ জনকে প্রতিবন্ধি ভাতা দেওয়া হয়।

পরে জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব শ্রীবরদী পৌর শহরের তাতিহাটি মহল্লার আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর ও কুরুয়া ভাটিপাড়া কমিউনিটি ক্লিনিক পরিদর্শন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *