ভুরুঙ্গামারীতে রোপা আমন  চাষের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে

⚫মোঃ মনিরুজ্জামান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের  ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় চলতি মৌসুমে রোপা আমন চাষের নির্ধারিত লক্ষ্য মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। দিগন্ত জোড়া সবুজ মাঠে কৃষক স্বপ্ন বুনছে। মাঠের পর মাঠ সবুজের সমারোহে ভরে গেছে। এখন কার্তিক মাস চলছে। আর কার্তিকেই আমন ধানের ধোর ও শীষ বেড় হয়। যতই দিন যাচ্ছে ধানের রুপ তত বদলাচ্ছে। উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ও কৃষকদের সাথে কথা বলে জানাগেছে- এবার বর্ষার শুরুতেই আষাঢ় মাস থেকে শ্রাবন মাসে পর্যাপ্ত বৃষ্টি হওয়াতে একটু আগে ভাগেই আমন ধানের চারা রোপন শুরু করেছিলেন কৃষকরা।গত বারের  চেয়ে তুলনা মূলক বৃষ্টিপাত বেশি হওয়ায় ও আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় রোপা আমন ধান চাষে কৃষকরা ভালো ফলন পাবার আশা করছেন।  উপজেলার নলেয়া  গ্রামের কৃষক আব্দুল জলিল জানান চলতি মৌসুমে তিনি ৫ বিঘা জমিতে বিভিন্ন জাতের ধান চাষ করেছেন । পর্যাপ্ত বৃষ্টির পানি পাওয়ায় চাষাবাদে কোন অসুবিধা হয় নাই ।  ফলনও বেশ ভালো হবে বলে তিনি আশা করছেন ।  উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে , চলতি মৌসুমে ভুরুঙ্গামারী উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে মোট ১৬৪৯২ হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধান চাষের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল। অর্জিত হয়েছে ১৬৭১৪ হেক্টর।  যা একি সময়ে গত বছর ছিল ১৪৮৮৫ হেক্টর জমিতে। আর অর্জিত হয়েছিল১৫৮৯০ হেক্টর ।  উপজেলা কৃষি অফিসার আসাদুজ্জামান বলেন- গত শুক্রবার বৃষ্টি ও দমকা হাওয়ার কারণে ১০ থেকে ১৫ হেক্টর জমির ধান সামান্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আর   এবার কৃষকরা তাদের চাহিদা মত বিভিন্ন কৃষি উপকরণ পাওয়ায় নির্বিঘ্নে রোপা আমন ধান চাষ করতে পেরেছে। যদি শেষ পর্যন্ত আবহাওয়া অনুকুলে থাকে তাহলে ফলনও বেশ ভালো হবে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে রোপা আমন ধান উৎপাদনের নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছে উপজেলা কৃষি বিভাগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *